প্রেস ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ (পিআইবি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৫ নভেম্বর ২০১৮

গৃহস্থালি কাজে নারীর শ্রমের স্বীকৃতি আদায়ে গণমাধ্যমকে কাজ করতে হবে- অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক


প্রকাশন তারিখ : 2018-11-25

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেছেন, গৃহস্থালী সেবামূলক কাজে নারীর স্বীকৃতি প্রদান ও জনচেতনতা তৈরিতে গণমাধ্যমের ভ‚মিকা পালন করতে হবে। রাষ্ট্র, সমাজ ও পরিবারে গৃহস্থালি কাজের মূল্যায়ন নিশ্চিত করতে পারলে তা দেশের প্রবৃদ্ধির সঠিক চিত্র তুলে ধরতে আমাদের সহযোগিতা করবে। নারী শ্রমের স্বীকৃতি ও যথাযথ মূল্যায়নের বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণ উল্লেখ করে তিনি বলেন, নারীর ক্ষমতায়ন ও সঠিক মর্যাদা প্রতিষ্ঠায় সামাজিক ও পারিবারিকভাবে নারীকে মূল্যায়ন করতে হবে।

প্রেস ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ (পিআইবি) ও একশনএইড বাংলাদেশ-এর যৌথ উদ্যোগে দুইদিনব্যাপি ‘সাংবাদিকতা: প্রেক্ষাপট গৃহাস্থলির সেবামূলক কাজ’ শীর্ষক সাংবাদিক কর্মশালার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। পিআইবি মহাপরিচালক মো. শাহ আলমগীর-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক কাবেরী গায়েন, জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন ও একশনএইড বাংলাদেশের ডেপুটি ডিরেক্টর (প্রোগ্রাম, পলিসি এন্ড ক্যাম্পেইন) ফারিয়া চৌধুরী। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক কাবেরী গায়েন বলেন, সারা পৃথিবীতে প্রতিবছর লক্ষ লক্ষ শ্রমঘন্টা অদৃশ্য হয়ে যাচ্ছে। আর এই অদৃশ্য শ্রমঘন্টার বেশিরভাগই হচ্ছে আমাদের নারীদের গৃহস্থালী কর্মকান্ডের বিভিন্ন সেবামূলক কাজ। নারীর গৃহস্থালি সেবামূলক কাজের যথাযথ মূল্যায়ন ও স্বীকৃতি না দিতে পারলে নারীর ক্ষমতায়ন নিশ্চিত করা যাবে না। আর এ ক্ষেত্রে গণমাধ্যমকে সংবাদ ও ফিচার প্রকাশের পাশাপাশি ওয়াচডগের ভূমিকা পালন করতে হবে। নারীর অমূল্যায়িত শ্রমের বিষয়টিতে যাতে নীতিনির্ধারকরা মনোযোগী হন, সে বিষয়ে সাংবাদিকদের কাজ করতে হবে। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন জানান, ঘরের কাজে নারীর শ্রমের যদি আর্থিক মূল্য দেয়া যেতো, তাহলে সেটা আমাদের প্রবৃদ্ধিকে বাড়িয়ে দিতো। তাই নারীর শ্রমের মূল্যায়ন দিতে হবে। নারী যখন তার কাজের আর্থিক মূল্য পাবেন, তখন সেটা নারীর ক্ষমতায়নে সহায়ক ভ‚মিকা পালন করবে। আর এই কাজে গণমাধ্যম গুরুত্বপূর্ণ ভ‚মিকা পালন করতে পারে। 

একশনএইড বাংলাদেশের ডেপুটি ডিরেক্টর ফারিয়া চৌধুরী বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জানান, সমাজের পরিবর্তণের সাংবাদিকের কলমের ভ‚মিকা অনস্বীকার্য । নারীর গৃহাস্থলির সেবামূলক কাজের অর্থনৈতিক মূল্যায়ন ও সামাজিক স্বীকৃতি নিশ্চিত করতে নীতি নির্ধারকদের পাশাপাশি গণমাধ্যমকর্মীরা এগিয়ে আসবেন, এটা আমাদের বিশ্বাস। সভাপ্রধানের বক্তব্যে পিআইবি মহাপরিচালক মো. শাহ আলমগীর বলেন, গৃহস্থালি কাজে নারীর শ্রমের মূল্যায়নের মধ্যে দিয়ে নারীকে তার প্রাপ্র্য সম্মান ও মর্যাদা দিতে হবে। আর এ কাজে সংবাদকর্মীদের গুরুত্বপূর্ণ ভ‚মিকা পালন করতে হবে। সাংবাদিকরা জনমত গঠনের মধ্যে দিয়ে সমাজ ও পরিবারে নারীর মূল্যায়ন নিশ্চিত করতে সহায়ক ও গুরুত্বপূর্ণ ভ‚মিকা পালন করতে পারেন। 

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন একশনএইড বাংলাদেশের পাওয়ার প্রজেক্টের প্রকল্প ব্যবস্থাপক মো. হেলাল উদ্দিন। 

ঢাকা ও ঢাকার বাইরের মোট ৩২ জন সাংবাদিক প্রশিক্ষনটিতে অংশ নিয়েছেন। কর্মশালার সার্বিক সমন্বয়কের দায়িত্ব পালন করছেন পিআইবি’র অধ্যয়ন ও প্রশিক্ষণ বিভাগের সহকারী প্রশি¶ক নাসিমূল আহসান ।


Share with :

Facebook Facebook